Honda Vezel V/S CH-R

Honda Vezel V/S Toyota CH-R

বর্তমান ক্রসওভার স্যাগমেন্টে মাত্র দুটো অপশনই পাবেন; একটা Vezel আরেকটা CH-R। আগেই বলে রাখি CH-R এর দাম ভেজেল থেকে কিছুটা বেশী। তাপরেও যেহেতু দুটোই ক্রসওভার তাই কম্পারিজন। আমাদের এই কম্পারিজনের একমাত্র উদ্দেশ্য হচ্ছে যেন আপনারা ডিসিশান নিতে পারেন কোনটা আপনা৷ জন্য ভাল হবে। Honda Vezel V/S CH-R

এক্সটেরিওরঃ প্রথম দেখায় CH-R কে ভাল লাগতে বাধ্য। টয়োটা এই প্রথম এরকম ফ্যান্টাস্টিক লুকিং একটা গাড়ি দিয়েছে। CH-R এর সিকোয়েনশিয়াল টার্ন ইন্ডিকেটর, গ্রীল-লেস ফ্রন্ট, আর প্রচুর প্রচুর লাইন, 3D LED হেড আর টেইল লাইট নিয়ে মারাত্নক সুন্দর দেখায়। অন্যদিকে ভেজেলও কম না, ডে টু ডে ড্রাইভের জন্য ডিজাইনটা খারাপ না। কিন্তু CH-R এর মতো কখনোই সুন্দর না, ডিজাইনের দিক চিন্তা করলে CH-R ই আগায় থাকবে।

প্রাকটিক্যালিটিঃ নতুন ডাইমেনশান অনুযায়ী CH-R আর ভেজেলের স্পেস খুব কাছাকাছি। ভেজেলের বুটস্পেস কিছুটা বড়। আর যদি সিট কম্ফোর্ট এর দিক চিন্তা করেন তাহলে CH-R এর সিটগুলো বেশী কম্ফোর্টেবল ভেজেল থেকে। সাসপেনশানও কাছাকাছি ফিডব্যাক দিবে। তবে CH-R এ একটা ঝামেলা আছে, পেছনের উইন্ডো গুলো খুব অডলি ডিজাইন করা। উইন্ডোগুলো তেমন খুব একটা বড় না তাই ভিজিবিলিটি একটু কম পাবেন। এটা ছাড়া বাকি কম্ফোর্ট অপশন ভেজেল থেকে বেটার। আর ড্রাইভিং এক্সপেরিয়েন্সের কথা বলতে গেলে এখানেও C-HR ভাল পারর্ফম করেছে। C-HR এর ড্রাইফিং এক্সপেরিয়েন্স স্মুথ,কম্ফোর্টেবল রাইড দিবে। অন্যদিকে ভেজেলের রাইড একটু হার্ড হবে আর কিছুটা আনকম্ফোর্টেবল। কারন হচ্ছে হোন্ডা তাদের গাড়িগুলোয় সাসপেনশান কিছুটা হার্ড করে, আর C-HR স্পেশালি বানানো হয়েছে ইউরোপিয়ান মার্কেটের জন্য লাক্সারি-ক্রসওভার হিসেবে তাই কম্ফোর্ট মাস্ট।

পার্ফমেন্সঃ Honda Vezel ১৫০০ সিসি হাইব্রিড আর C–HR দুইটা ভার্সন অফার করে। একটা ১৮০০ সিসি হাইব্রিড আরেকটা ১২০০ সিসি টার্বো। একটা ব্যাপার সবসময় খেয়াল করবেন হোন্ডা সবসময় তাদের গাড়িগুলোয় পার্ফমেন্সের দিকে একটু বেশী নজর দেয়। এখানেও ব্যাপারটা তাই হয়েছে ভেজেলের হর্স পাওয়ার আইটপুট C-HR থেকে বেশী, আবার হোন্ডার dual clutch transmission টয়োটার cvt থেকে ফাস্ট গিয়ার শিফট করতে পারে। কিন্তু CH-R 1800cc হওয়া সত্বেও ভেজেল 1500cc এর মতো ফুয়েল ইকোনমি দিবে; এখানেই টয়োটা কাজ দেখিয়েছে।

লাস্ট অপিনিয়ন, CH-R একটা লাক্সারী ফিল দিবে, সাথে আছে গুড লুকিং এক্সটেরিওর, এর কেবিনও খুব প্রিমিয়াম। যদি কেবিন ম্যাটারিয়াল ভেজেলের সাথে কম্পেয়ার করে থাকেন তাহলে দেখবেন ভেজেল থেকে অনেক পশ ম্যাটারিয়াল তারা ইউজ করেছে। কম্ফোর্ট, ইকোনমি, লুকিং সব দিক দিয়েই C-HR কে বিড করতে পারেনা ভেজেল। যদি আপনার বাজেট হয় টাইট তাহলে ভেজেল নিতে পারেন খারাপ না, আর যদি আরও ৩-৪ লাখ টাকা এক্সটা এড করতে পারেন তাহলে নিঃসন্দেহে C-HR নেন। এই প্রাইসে এর থেকে সুন্দর ক্লাসি গাড়ি আর হতে পারেনা।

Written by: Tansir Sharfuddin

গাড়ীর নিয়ে আরও ডিটেল জানতে; গাড়ি নিয়ে আড্ডা দিতে জয়েন হোন আমাদের আফিসিয়াল গ্রুপে CarHub BD [ Official ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *